আপনি তো রেডিও জকি, অভিনয়ে এলেন কী করে?

রেডিওতে আমার শো শুনে অমিতাভ রেজা ভাই আমাকে প্রস্তাব দেন। কয়েকটা বিজ্ঞাপন করি। রাহশান নূর ‘বেঙ্গলি বিউটি’ ছবিতে রেডিও জকি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য শিল্পী খুঁজছিলেন। যেহেতু আমি আরজে ছিলাম, পরিচালক আমাকে এই চরিত্রের জন্য অডিশন দিতে বলেন। এক মাস পর আমাকে নিশ্চিত করা হয়। এভাবেই অভিনয়ের শুরু।

‘বোধ’-এর সঙ্গে কীভাবে যুক্ত হলেন?

২০১৬ সালের দিকে অমিতাভ ভাইয়ের সঙ্গে আমার প্রথম কাজ। এরপর একসঙ্গে আরও কয়েকটা কাজ করা হয়। ওভাবেই তাঁর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক হয়ে যায়। একদিন তিনি বললেন, ‘একটা ক্যারেক্টার আছে, তুমি অডিশন দাও।’ এটা আমি সিরিয়াসভাবে নিইনি। গিয়ে অডিশন দিলাম। এরপর অনেক দিন এ নিয়ে আর কথা হয়নি। পরে যখন হইচই থেকে নিশ্চিত করা হলো, তখন অমিতাভ ভাই ফোন করে বললেন, ‘অফিসে চলে এসো, রিহার্সালে যেতে হবে।’ এভাবেই সিরিজটির সঙ্গে যুক্ত হওয়া।

কাজের অভিজ্ঞতা কেমন?

ওটিটিতে এটাই আমার প্রথম কাজ। অমিতাভ ভাইয়ের মতো পরিচালকের সঙ্গে কাজ, এত বড় একটা প্রজেক্ট—সব মিলিয়ে প্রথমে আমি ভয়ে ছিলাম। অমিতাভ ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা বরাবরই ভালো। তিনি আসলে দক্ষ একজন মানুষ। যে চরিত্র থেকে যে ধরনের পারফরম্যান্স প্রয়োজন, সেটা তিনি বের করে আনেন। এত সুন্দর করে চরিত্রটা বুঝিয়ে দিতে পারেন যে খুব বেশি কষ্ট করতে হয় না। আরেকটা বড় বিষয় ছিল, আফজাল হোসেনের মতো অভিনেতার সঙ্গে অভিনয়। এ ছাড়া ছিলেন দিলারা জামান। তাঁদের সঙ্গে শুটিংয়ের পুরো সময়টায় খুব মজা হয়েছে।

প্রতিক্রিয়া কেমন পাচ্ছেন?

ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। দর্শকেরা কাজটা পছন্দ করেছেন। শ্রাবন্তী চরিত্রটা ভালো লেগেছে। দিন শেষে ভালো লাগছে দর্শকের প্রতিক্রিয়া দেখে। এতটা ভালো প্রতিক্রিয়া পাব, নিজেও ভাবিনি।

সামনে আর কী কাজ আসবে?

আরেকটি সিরিজ করার কথা রয়েছে। প্রাথমিকভাবে চরকির এই সিরিজের নাম ‘ইন্টার্নশিপ’। প্রমোশন চলছে, কিছুদিনের মধ্যে টিজারও চলে আসবে। সিরিজটি হয়তো আগামী বছর মুক্তি পাবে।

প্রথম ওয়েব সিরিজেই প্রশংসা পাচ্ছেন। অভিনয় নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

বেশ কিছু পরিকল্পনা আছে। এখন অভিনয়ে মনোযোগ দিচ্ছি। অনেক দিন চাকরি করেছি। এখন অভিনয় শুরু করলাম। এখন আমি খুশি। এখন এটাকে যত দিন ধরে রাখতে পারি, তত দিন অভিনয় চালিয়ে যাব।

কী ধরনের কাজ করতে চান?

আসলে একটা চরিত্র নির্ভর করে গল্পটা কেমন, সেটার ওপর। গল্পে ওই চরিত্র কী প্রভাব ফেলছে আর কীভাবে বলা হচ্ছে। চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয় করতে চাই। যে চরিত্র আগে কেউ দেখেননি।