default-image
>প্রশংসিত এক কাজ করেছেন কুশল মেন্ডিস। বাংলাদেশ জোরালো আবেদন না করার পরও নিজে আউট হয়েছেন জেনে ড্রেসিংরুমের পথ ধরেছেন। আম্পায়ার আউট না দেওয়ার পরও! অনেক দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ওয়াক করতে দেখল কোনো ব্যাটসম্যানকে

ক্যাচটা ধরলেই সৌম্য সরকারের বোলিং ফিগারটা দেখাত অবিশ্বাস্য সুন্দর। ৯ বলে মাত্র ১ রান দিয়ে ১ উইকেট! কিন্তু মাহমুদউল্লাহ বলটা হাতে নিয়েও জমাতে পারলেন না। জমতে থাকা হতাশাটা আরও দৃঢ় হয়ে ঘিরে ধরল বাংলাদেশকে। সিরিজের প্রথম ওয়ানডের প্রথম ইনিংসটা এমনই হতাশার সব গল্পে ভরা।

বিশ্বকাপে দুঃস্বপ্নের মতো দেখা দেওয়া বাজে ফিল্ডিং আজও সঙ্গী হয়েছে। কাল ফ্লাড লাইটের আলোতে ফিল্ডিং অনুশীলন করা দলটি দিনের আলোতেই আর ফিল্ডিং ভালো করতে পারল না। ক্ষণিকের জন্য মাঠে নেমে এক ওভারেই দুই দুইটি মিস ফিল্ডিং করলেন এনামুল হক। সীমানা দড়ির কাছে সময়মতো ডাইভ নিতে না পাড়ায় বেশ কিছু চারও হলো। এর মাঝেও আলাদা হয়ে দগদগ করছে মাহমুদউল্লাহর ওই ক্যাচ ছাড়া।

বাংলাদেশের তবু ভাগ্য ভালো, ২৭তম ওভারে জীবন পাওয়া কুশল মেন্ডিসের ছয় ওভার পরেই কিংবদন্তিদের সারিতে যাওয়ার ইচ্ছা হলো। ২৮ রানে জীবন পাওয়া মেন্ডিসের রান তখন ৪৩। রুবেল হোসেনের একটি লেংথ বলে কাট করার চেষ্টা করেন লঙ্কান ব্যাটসম্যান। ব্যাটে-বলে হলো না ঠিকমতো। ব্যাটের কানায় লাগেনি বলে হতাশায় মুখ কুঁচকালেন বোলার রুবেল। বল গ্লাভসে জমা নিয়ে হালকা একটু আবেদন করেছিলেন মুশফিক। কিন্তু সে আবেদনে নিয়মরক্ষার সুর ছিল, জোরালো দাবি ছিল না।

আম্পায়ারেরও ইচ্ছা হয়নি সে আবেদনে সাড়া দেওয়ার। মাথা এদিক-ওদিক করে বলে দিলেন ‘নট আউট’! ওভার শেষ হয়ে যাওয়ায় প্রান্ত বদলের জন্য মুশফিকও তাঁর পেছনে রাখা হেলমেট খুঁজতে গেলেন। এমন সময় মেন্ডিস হাঁটতে শুরু করলেন ড্রেসিংরুমের দিকে। পুরো মাঠ তখন বিভ্রান্ত। দুই আম্পায়ার বোঝার চেষ্টা করছেন কী হলো, বাংলাদেশও ঠিক বুঝে উঠতে পারছে না উইকেট পাওয়ার উদ্‌যাপন করবে কি না। গর্জনরত গ্যালারিও মেন্ডিস যে আউট হয়েছেন তা বুঝে উঠতে পারেনি। সমানে ঢাকঢোল বাজানো চলছে, চিৎকার চেঁচামেচিতে কান ঝালাপাল হয়ে যাওয়ার জোগাড় তখন। একমাত্র মেন্ডিসই প্রচণ্ড রাগ নিয়ে সমানে ব্যাট ঝাঁকাতে ঝাঁকাতে হাঁটা শুরু করেছেন। এমনই অবস্থা একটু পরে রিপ্লেতে যখন দেখানো হলো বল উইকেট কিপারের কাছে চলে যাওয়ায় রুবেল হতাশা প্রকাশ করছেন, তাতেও উল্লাসের গর্জন উঠল। অথচ ততক্ষণে ‘ওয়াক’ করা মেন্ডিস ড্রেসিংরুমে পৌঁছে গেছেন!

ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই রিভিউ হারিয়েছে বাংলাদেশ। আম্পায়ার নট আউট দেওয়ায় সে সময় বাংলাদেশের পক্ষে সিদ্ধান্ত পাল্টানো সম্ভব হতো না। আর বাংলাদেশ দলই আউট হয়েছে কি না, এ নিয়ে সন্দেহে ছিল, দুর্বল আবেদনেই তার প্রমাণ। এমন অবস্থায় মেন্ডিস ওয়াক না করলেও পারতেন। কিন্তু গত কিছুদিনের উদাহরণ ভুলিয়ে দিয়ে ক্রিকেট যে ভদ্রলোকের খেলা, সেটা মালিঙ্গার বিদায়ী ম্যাচেই মনে করিয়ে দেওয়ার ইচ্ছে হলো মেন্ডিসের।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন