সানজিদা-সাবিনাদের চাওয়া অনুযায়ী তাঁদের বরণ করে নিতে দেশে ছাদখোলা বাস প্রস্তুত। সরকারের পরিবহন সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন (বিআরটিসি) ছাদখোলা বাসে বরণ করবে নারী জাতীয় দলের ফুটবলারদের। তবে উৎসবের বাঁশি বাজা শুরু হয়েছে সুদূর নেপাল থেকে।

নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে মেয়েরা প্রথম সাফ জয়ের পর কোচ গোলাম রব্বানী জানান, জয়ের উদ্‌যাপন মনের মতো করেই করতে পারবেন খেলোয়াড়েরা। সে ধারাবাহিকতায়ই কাটা হয়েছে কেক, আর ডোয়াইন ব্রাভোর ‘চ্যাম্পিয়ন’ গানের সুরে নেচেছেন মেয়েরা।

কেক কাটার ভিডিও কাল নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন বাংলাদেশের মিডফিল্ডার মারিয়া মান্দা। হোটেলে হইচই ও উৎসবমুখর পরিবেশে কোচিং স্টাফ এবং বাফুফের মহিলা কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণকে নিয়ে কেক কাটেন খেলোয়াড়েরা।

মারিয়া মান্দা নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আরেকটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেটিও আনন্দ-উৎসবের ভিডিও। ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার ডোয়াইন ব্রাভোর ‘চ্যাম্পিয়ন’ গানের তালে সুর মিলিয়ে নেচেছেন তিন ফুটবলার। ভিডিওটি এ প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ৬২৭ বার শেয়ার হয়েছে।

জয়ের উৎসব আসলে শুরু হয়েছিল মাঠেই। ম্যাচে শেষ বাঁশি বাজার পর জাতীয় পতাকা হাতে উল্লাস করেন মেয়েরা। কেউ কেউ একটু নেচেও নিয়েছেন। টিম বাসে ওঠার পর উৎসবের মেজাজ আরও রঙিন হয়েছে। মারিয়া মান্দা বাসে উল্লাসের একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেখান দেখা যায়, বিজয়সূচক ‘ভি’ চিহ্ন দেখিয়ে চিৎকার-চেঁচামেচিতে গোটা বাস মুখরিত করে রাখেন খেলোয়াড়েরা। কাল দেশে ফিরবে নারী দল। তখন উৎসবটা যে পূর্ণতা পাবে, তা বলাই বাহুল্য।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন