কানাডা যে গোল করতে পারেনি, তার জন্য নিজেদের ফিনিশিং ব্যর্থতার সঙ্গে ছিল প্রতিপক্ষ দলে ‘বাজপাখি’ হয়ে ওঠা থিবো কোর্তোয়াও। একটি পেনাল্টিসহ তিনটি দুর্দান্ত সেভ করেছেন রিয়াল মাদ্রিদে খেলা এই গোলকিপার।

ম্যাচ শেষে বেলজিয়াম কোচের প্রশংসার সিংহভাগ বরাদ্দ থাকল তাই কোর্তোয়ার জন্য, ‘কাঁকর বিছানো পথ মাড়িয়ে জিততে পারলাম বলে আমি খুবই খুশি। পেনাল্টি রুখে দিয়ে গোলকিপার আমাদের ম্যাচে টিকিয়ে রেখেছিল। ভালো খেলার চেয়েও আজকের জয়টা বেশি জরুরি ছিল।’

কেন জরুরি ছিল, সেটির ব্যাখ্যাও দিয়েছেন মার্তিনেজ, ‘এরই মধ্যে কয়েকটি বড় দল হেরে গেছে। টুর্নামেন্ট যত এগোবে, তত আপনাকে উন্নতি করতে হবে। সে ক্ষেত্রে জয় দিয়ে শুরু করতে পারা অবিশ্বাস্য রকমের সুবিধা দেয়।’

তবে তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়লেও ম্যাচের সেরা খেলার কৃতিত্ব কানাডাকেই দিয়েছেন বেলজিয়ান কোচ, ‘তারা যেভাবে খেলেছে, আমাদের চেয়ে ভালো কিছুই প্রাপ্য ছিল।’

একই সুরে কথা বলেছেন বেলজিয়ামের অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইনাও। গোলমুখে একটি শট নিতে পারা ডি ব্রুইনা হয়েছেন ম্যাচের সেরা। তবে পুরস্কারটি প্রাপ্য ছিল না বললেন অকপটেই, ‘আমার মনে হয় না ভালো খেলেছি। জানি না, এই পুরস্কারটা আমাকে কেন দেওয়া হয়েছে। হয়তো আমার নামের কারণে। কিন্তু ভালো খেলার কৃতিত্ব দিতে হবে কানাডাকে।’

জানি না, এই পুরস্কারটা আমাকে কেন দেওয়া হয়েছে। হয়তো আমার নামের কারণে। কিন্তু ভালো খেলার কৃতিত্ব দিতে হবে কানাডাকে
কেভিন ডি ব্রুইনা

বেলজিয়ামের পরের ম্যাচ ২৭ নভেম্বর মরক্কোর বিপক্ষে। একই দিন কানাডা খেলবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। ক্রোয়েশিয়া-মরক্কো নিজেদের প্রথম ম্যাচে গোলশূন্য ড্র হয়।