স্প্যানিশ রেডিও কাদেনা সারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রোমানের বার্সা-যাত্রা নিয়ে কথা বলেছেন প্যানডোলফি, ‘বার্সেলোনা অনেক দিন ধরে তাঁকে অনুসরণ করছিল। খেলোয়াড়ি নৈপুণ্যে সব সময়ই সে বয়সের তুলনায় এগিয়ে। আর্জেন্টিনার অনূর্ধ্ব-১৬ ও অনূর্ধ্ব-১৮ দলে খেলেছে। আমাদের দলে প্রথম খেলে ১৬ বছর বয়সে, এর পর থেকে শুরুর একাদশের নিয়মিত খেলোয়াড় সে।’

বার্সেলোনা অবশ্য এখনই মূল দলে খেলাবে না রোমানকে। আক্রমণভাগে খেলা এই উইঙ্গারকে আপাতত বার্সার ‘বি’ দলে রাখা হয়েছে, তাঁকে দেখভাল করবেন মেক্সিকান কোচ রাফায়েল মার্কেজ।

এ বিষয়ে ফেরো প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘বার্সা ওকে নিজেদের মতো করে অনুশীলন করিয়ে নিতে চায়। এরপর একটু একটু করে এগোনোর মনোভাব তাদের।’

রোমানকে কিনতে কী পরিমাণ অর্থ খরচ হয়েছে, সেই তথ্য প্রকাশ করেনি বার্সেলোনা। তবে ফেরো প্রেসিডেন্ট অর্থের অঙ্ক আড়াল করেননি, ‘বার্সা আমাদের ১২ লাখ ইউরো দিয়েছে। এটা মোট বিক্রির ৮৫ শতাংশ। বাকি ১৫ শতাংশের মালিকানা আমরা রেখে দিয়েছি। ওকে ২০ ম্যাচ খেলালে বার্সা আমাদের ২০ লাখ ইউরো দেবে, ৩০ ম্যাচ খেলালে ৩০ লাখ আর ৪০ ম্যাচ খেলালে দেবে ৪০ লাখ। সর্বোচ্চ ৫২ লাখ ইউরো পর্যন্ত দেবে।’

বার্সেলোনা ভেবেচিন্তেই ৪০ কোটি ইউরোর রিলিজ ক্লজ দিয়েছে বলে মনে করেন প্যানডোলফি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যেটি ৪ হাজার কোটির বেশি।

রোমানের খেলার ধরন ও সামর্থ্যের বর্ণনা দিতে গিয়ে ফেরো প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘ওর মধ্যে মেসির মতো অনেক কিছুই আছে। বার্সেলোনার স্কাউটরা সেটা দেখেছে। ছোট ছোট ড্রিবল, মাঝ-দূরত্বে শট...এ রকম অনেক কিছু। এটা সত্যি যে এখনো মেসির মতো হওয়া থেকে কয়েক শ কিলোমিটার দূরে আছে। তবে মেসির বৈশিষ্ট্য ওর মধ্যে আছে। বার্সেলোনা আমাকে বলেছে, রোমানের মধ্যে ১৬ বছরের মেসির ছায়া দেখেছে ওরা।’