জোয়ানা সাঞ্জের জীবন ওলট–পালট হয়েছে গত সপ্তাহে। গত বছরে তাঁর মায়ের শরীরে টিউমার ধরা পড়ে। গত সপ্তাহে মাকে হারানোর খবর জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সেই শোক কাটিয়ে ওঠার আগেই গ্রেপ্তার হলেন তাঁর স্বামী। সাঞ্জ অবশ্য আলভেজের পাশেই আছেন।

ইনস্টাগ্রামে হাতে হাত রাখার একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘একসঙ্গে’। ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতেও একটি পোস্ট করেছেন সাঞ্জ। মায়ের মৃত্যু ও আলভেজের গ্রেপ্তার হওয়া তাঁর জীবনকে ওলট-পালট করেছে। সে জন্য লিখেছেন, ‘জীবনের দুটি স্তম্ভই হারিয়েছি।’

সাঞ্জ তাঁর পোস্টে লিখেছেন, ‘সংবাদমাধ্যমকে বলছি, এ মুহূর্তে আমার গোপনীয়তাকে সম্মান করুন। এক সপ্তাহ আগে মা চলে গেছেন। ভাবতেই পারছি না, সে নেই। এর মধ্যে আমার স্বামী এমন পরিস্থিতিতে পড়ল। জীবনের দুটি স্তম্ভই হারালাম। অন্যদের দুঃখের খবর আঁতিপাঁতি করে না খুঁজে একটু সহমর্মিতাও দেখাতে পারেন।’

পেশাদার ফুটবলে ৪৬ শিরোপাজয়ী আলভেজের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে ৪ জানুয়ারি। এর পর থেকেই আলভেজের পাশে দাঁড়িয়েছেন সাঞ্জ। টিভি চ্যানেল আতেনা ৩–এর অনুষ্ঠান ‘ইয়াহোরা সনসোলেস’-এ গিয়ে সাঞ্জ এর আগে বলেছেন, ‘আমি আমার স্বামীকে চিনি। কীভাবে সাক্ষাৎ হয়েছে, সেটাও জানি। সে অন্যদের কতটা সম্মান করে, তা–ও জানি। কারণ, আমার সঙ্গে পরিচয়ের মুহূর্তে সে আমাকে অসম্মান করেনি। নারীরা কীভাবে তাঁর দিকে এগোয়, সেটা কিন্তু আমিও দেখেছি। তারা যদি আমার সামনেই এমন করতে পারে, তাহলে আমার অনুপস্থিতিতে কী করে, তা ভাবতেও চাই না।’