default-image

এমবাপ্পে পিএসজির সঙ্গে নতুন চুক্তি করার পর থেকেই ফুটবল বিশ্বে একটা গুঞ্জন—তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক ভালো নেই নেইমারের। সত্যিই যদি সেটা হয়, তাহলে এমন অবস্থায় ত্রয়ী জমে ওঠাটা মুশকিল। কিন্তু এসবে পাত্তা দিতে চান না গালতিয়ের।

পিএসজির ফরাসি কোচ বলেছেন, ‘দলের ঊর্ধ্বে কেউ নয়। সম্ভাব্য সেরা মৌসুমের জন্য আমি সবার কাছ থেকে সেরাটা চাই, সিদ্ধান্ত নিতে চাই ভেবেচিন্তে। দলে যে কাজে আসবে না, তাকে বাদ দেওয়া হবে। তবে সেই বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্তটি ভেতর থেকেই নেওয়া হবে। সবার আগে দল।’

default-image

৩–৪–১–২ ফর্মেশন

সাঁত এতিয়েন, লিল ও নিসে গালতিয়েরের ৪–৪–২ পদ্ধতি খুব একটা কাজে লাগেনি। প্যারিসে আসার পর তিনি সেই পদ্ধতি থেকে সরে এসেছেন। তবে এটাও চূড়ান্ত নয়, এমনটাই বোঝা যায় তাঁর কথায়, ‘পদ্ধতির আগে আমি খেলোয়াড়দের মনোভাব দেখতে চাই...আমরা তিনজনের রক্ষণভাগ নিয়ে কথা বলেছি, দেখি কী হয়।’

গালতিয়েরের কাছে ভালো ফুটবল খেলাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, ‘ভালো খেললেই আপনি জিতবেন। তবে আমার ক্লাবগুলোর চেয়ে এখানকার মনোভাবটা ভিন্ন থাকবে। পিএসজি বল পজেশনে সব সময়ই ভালো ছিল। আমাদের আক্রমণ করার সামর্থ্য থাকতে হবে। আর সঠিক ভারসাম্য ধরে রাখতে হবে।’

তিন সেন্টারব্যাক খেলানো নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘এ মৌসুমে আমরা এ পদ্ধতিই ব্যবহার করব। এ পদ্ধতিতে আমরা দুটি ম্যাচ খেলেছি, প্রতিদিন অনুশীলনও করছি। মানিয়ে নিতে একটু সময় লাগবে।’

default-image

নেইমার–প্রসঙ্গ

গুঞ্জন আছে, উপযুক্ত মূল্য পেলে নেইমারকে বিক্রি করে দেবে পিএসজি। কিন্তু সেটা এখনো হয়নি। তাঁকে কীভাবে পরিকল্পনায় রাখছেন গালতিয়ের? ফরাসি কোচের কথা, ‘আমি তাকে কীভাবে হিসাবে না রেখে পারি? সে বিশ্বমানের একজন ফুটবলার।’

নেইমারকে নিজের পরিকল্পনায় ভালোভাবেই রেখেছেন গালতিয়ের। এখন শুধু ভেবে দেখছেন, কীভাবে আক্রমণভাগে মেসি ও এমবাপ্পের সঙ্গে তাঁর সমন্বয় করানো যায়, ‘আপনাকে অবশ্যই ভারসাম্য বজায় রাখতে হবে। তবে তার কাছ থেকে কী চাই, সে বিষয়ে আমি পরিষ্কার। আমি নিশ্চিত সে থাকবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন