রনিল বিক্রমাসিংহে বলেন, ‘আমরা আমাদের সংবিধানকে অবজ্ঞা করতে পারি না। এ ছাড়া ফ্যাসিস্টদের হাতে ক্ষমতাও তুলে দিতে পারি না। গণতন্ত্রের জন্য হুমকি ফ্যাসিবাদী হুমকির অবসান ঘটাতে হবে।’

বিবিসির কলম্বোর একজন প্রতিনিধি বলেছেন, রনিল বিক্রমাসিংহের এমন বিবৃতি রাজধানী কলম্বোর আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনী নামানোর ইঙ্গিত দিচ্ছে।

সংকটে জর্জর শ্রীলঙ্কাজুড়ে আজ বুধবার জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন মুখপাত্র এ তথ্য জানান। অনির্দিষ্টকালের জন্য এ জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশজুড়ে অনির্দিষ্টকালের কারফিউ জারি করা হয়েছে। রাজধানী কলম্বোতেও কারফিউ বলবৎ থাকবে। ক্রমবর্ধমান বিক্ষোভ থামাতে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

অর্থনৈতিক সংকটের মুখে গণ–আন্দোলনের মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার রাতে দেশ ছেড়ে পালান শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে। তিনি একটি সামরিক উড়োজাহাজে করে মালদ্বীপে গেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন অভিবাসন কর্মকর্তারা।

শ্রীলঙ্কা অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এ সংকটের প্রেক্ষাপটে গত মার্চ মাসে দেশটির হাজারো মানুষ রাজপথে নেমে আসেন। তাঁরা লাগাতার বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছেন।

গত শনিবার শত শত বিক্ষোভকারী গোতাবায়ার বাসভবনে ঢুকে পড়েন। এদিন রাতে পদত্যাগের ঘোষণা দেন গোতাবায়া।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন