জরিপের তথ্য বিশ্লেষণ করে ইউগভ জানিয়েছে, পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার লড়াই যত জমে উঠছে, লিজ ট্রাসের চূড়ান্ত জয়ের সম্ভাবনা ততই বাড়ছে। কনজারভেটিভ পার্টির অনেক রাজনীতিক প্রধানমন্ত্রী পদে নিজেদের পছন্দের প্রার্থীর বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি। তাই শেষ মুহূর্তে তাঁদের সমর্থন ট্রাস ও সুনাকের মধ্যে যেকোনো একজনের চূড়ান্ত জয় পেতে বড় ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে।

যদিও কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান হিসেবে প্রাথমিক বাছাইয়ের পাঁচটি পর্বেই সুনাক তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাসের তুলনায় এগিয়ে ছিলেন। বুধবারের বাছাইয়ে ঋষি সুনাককে ভোট দিয়েছেন ১৩৭ এমপি। আর লিজ ট্রাস পান ১১৩ জনের সমর্থন।

তবে ইউগভ বলছে, প্রথম চার দফা বাছাইয়ে ট্রাস তৃতীয় অবস্থানে ছিলেন। কিন্তু বুধবারের ভোটে তিনি দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসেন। তাই শেষ মুহূর্তের বাছাইয়ে ট্রাস বড় চমক দেখাতে পারেন। ট্রাস সুনাকের থেকে ব্যবধানের ফারাক ক্রমেই কমিয়ে আনছেন। হতে পারেন যুক্তরাজ্য সরকারের পরবর্তী কান্ডারি, বরিস জনসনের উত্তরসূরি।

নানা কেলেঙ্কারির কারণে চলতি মাসের শুরুতে পদত্যাগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তাঁর পদে আসতে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। সেখান থেকে চূড়ান্তভাবে টিকে যান সুনাক ও ট্রাস। দলের সদস্যদের ভোটে তাঁদের দুজনের মধ্যে একজনকে নির্বাচিত করা হবে। আগামী ৪ আগস্ট ভোটদান শুরু হবে, যা চলবে প্রায় এক মাস।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন