সূত্র বলেছে, নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর নয়াদিল্লির তিন মূর্তি মার্গে দ্রৌপদী মুর্মুর অস্থায়ী বাসভবনে গিয়ে তাঁকে অভিনন্দন জানাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

মুর্মুর জয়ের ঘোষণা আসার পর রাজপথে অবস্থিত দলীয় সদর দপ্তর থেকে শোভাযাত্রা বের করার পরিকল্পনা করছে বিজেপির দিল্লি শাখা। শোভাযাত্রায় বিজেপির বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা অংশ নেবেন বলেও সূত্র জানিয়েছে।

এ ছাড়া বিজেপির সব রাজ্য শাখা মুর্মুর বিজয় উদ্‌যাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরই এ উদ্‌যাপন শুরু হবে।

ওডিশায় দ্রৌপদী মুর্মুর নিজের শহর রায় রংপুরেও মিষ্টি বিতরণের মাধ্যমে বিজয় উদ্‌যাপনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া আদিবাসী সাঁওতালদের ঐতিহ্যবাহী নৃত্য ও বিজয় উদ্‌যাপন অনুষ্ঠান আয়োজনেরও পরিকল্পনা করা হয়েছে।

বিজেপি মনোনীত রাষ্ট্রপতি প্রার্থী মুর্মু সাঁওতাল সম্প্রদায়ের নারী। এর আগে তিনি ঝাড়খন্ড রাজ্যের গভর্নর ছিলেন। রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হিসেবে একজন আদিবাসী নারীকে মনোনয়ন দেওয়ায় বিরোধীদের মধ্যে ভাঙন ধরাতে পেরেছে বিজেপি।

এদিকে দ্রৌপদী মুর্মুর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বিরোধীরা দাঁড় করিয়েছেন ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী ও বিজেপির একসময়ের শীর্ষ নেতা যশোবন্ত সিনহাকে। তাঁকে সমর্থন দিয়েছে কংগ্রেসসহ ভারতের ৩৪টি বিরোধী দল। কিন্তু এসব দলের অনেক নেতা দলীয় নির্দেশ অমান্য করে মুর্মুকে ভোট দিয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

ভারতের বর্তমান রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের মেয়াদ শেষ হবে ২৫ জুলাই। নতুন রাষ্ট্রপতি ওই দিনই শপথ নেবেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন