সমাজসেবা অধিদপ্তরের ময়মনসিংহ কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. ওয়ালী উল্লাহ বলেন, ‘শিশুটিকে আমরা ছোটমণি নিবাসে পাঠানোর প্রায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিলেও এখনো রেজল্যুশন হয়নি। যদি শিশুটিকে ছোটমণি নিবাসে পাঠানো হয়, তবে তা পরিবারের মতামতের ভিত্তিতেই হবে। আমরা শিশুটির পরিবারকে বিষয়টি জানিয়েছি।’

ওয়ালী উল্লাহ আরও বলেন, সরকারি নিবাসে থাকলে ছয় বছর পর্যন্ত শিশুটির থাকা-খাওয়া ও চিকিৎসা নিয়ে কোনো চিন্তা করতে হবে না। এ ছাড়া শিশুটির বৈধ অভিভাবক না থাকায় দত্তক দেওয়াও সম্ভব নয়। দত্তক দিতে চাইলে আদালতের কাছে যেতে হবে।
নিজেদের কাছেই রেখেই নাতনিকে লালন–পালন করতে করতে চান দাদা মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্তকেও সহজেই ফেলতে পারছি না।’

১৬ জুলাই ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ট্রাকচাপায় মারা যান শিশুটির বাবা জাহাঙ্গীর আলম (৪২), মা রত্না বেগম এবং তাঁদের ছয় বছরের মেয়ে সানজিদা। দুর্ঘটনার সময় সড়কে নবজাতকটির জন্ম হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন