কয়েক দিন আগে চিত্রনায়িকা পরীমনি তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে তাঁর স্বামী শরীফুল রাজ এবং অভিনেত্রী ও মডেল বিদ্যা সিনহা মিমকে ট্যাগ করে একটি স্ট্যাটাস দেন। রাজ ও মিমকে নিয়ে আলাদা আলাদা মন্তব্য করেন পরীমনি। এর কিছুদিন পর মিমকে ট্যাগ করে আরেকটি স্ট্যাটাস দেন পরীমনি। এর পরপরই রাজের সঙ্গে কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মিম।

গল্পের প্রয়োজনে ছবিতে কতগুলো রোমান্টিক দৃশ্য থাকতে পারে। এখন রাজের সঙ্গে এসব দৃশ্য করতে গেলে তাঁদের পরিবারে আবার অবিশ্বাস তৈরি হবে, ঝামেলা তৈরি হবে। তাতে আমার ও আমার পরিবারের জন্য মানসম্মান ক্ষুণ্ন হবে। সামাজিক ও পারিবারিকভাবে আবারও হেয় হতে পারি আমি। আমি চাই রাজ ও পরীমনি ভালো থাকুক

মিম বলেন, ‘রাজের সঙ্গে পরপর দুটি ছবি ভালো গেছে আমার। রাজ খুব ভালো সহশিল্পী।  জুয়েল ভাইয়ের পরিচালনায় এই ছবিতেও  রাজের বিপরীতে কাজের কথা ছিল। কিন্তু এখন আর রাজের বিপরীতে কাজ করব না। এ কথা বলে দিয়েছি পরিচালককে।’

কিন্তু কেন? জানতে চাইলে মিম বলেন, ‘রাজের সঙ্গে ‘দামাল’ ছবির প্রচার থেকে শুরু করে রাজের স্ত্রী পরীমনি ফেসবুকে আমাকে নিয়ে স্ট্যাটাস দিয়ে যে সব ঘটনা ঘটিয়েছেন, তাতে রাজের সঙ্গে আর কাজ না করাই উত্তম। তাই আর তাঁর সঙ্গে কাজ করব না। শুধু তাই-ই নয়, আমার জন্মদিনেও ট্যাগ করে ফেসবুকে আমাকে নিয়ে বিতর্কিত স্ট্যাটাস দিয়েছেন পরীমনি। আমি অবাক হয়েছি। এতে করে বিয়ের পর আমার প্রথম জন্মদিনটাই রংহীন হয়ে গেছে। এ সব দেখে আমার মা অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন।’

মিম আরও বলেন, ‘গল্পের প্রয়োজনে ছবিতে কতগুলো রোমান্টিক দৃশ্য থাকতে পারে। এখন রাজের সঙ্গে এসব দৃশ্য করতে গেলে তাঁদের পরিবারে আবার অবিশ্বাস তৈরি হবে, ঝামেলা তৈরি হবে। তাতে আমার ও আমার পরিবারের জন্য মানসম্মান ক্ষুণ্ন হবে। সামাজিক ও পারিবারিকভাবে আবারও হেয় হতে পারি আমি। আমি চাই রাজ ও পরীমনি ভালো থাকুক।’

মিমের  কথা, এসব আর দেখতে চাই না। এর মধ্যে রাজের বিপরীতে কাজের জন্য আরও বেশ কয়েকটি চিত্রনাট্য হাতে এসেছে। কিন্তু পরিচালকদের  জানিয়ে দিয়েছি রাজের সঙ্গে আর কাজ করব না।