২০২২ সালে ৩১ টি-টোয়েন্টিতে ৪৬.৫৬ গড়ে ১ হাজার ১৬৪ রান তোলেন সূর্যকুমার। টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে কোনো ব্যাটসম্যানের এক বছরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান। এ ছাড়া উইকেটের চারপাশে উদ্বাবনী শট খেলে বিশেষভাবে দৃষ্টি কাড়েন তিনি। ১৮৭.৪৩ স্ট্রাইক রেটে রান তোলার পথে হাাঁকান ৬৮টি ছক্কা। টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে এক বছরে সর্বোচ্চ ছয়ের কীর্তি এটি।

৩২ বছর বয়সী সূর্যকুমার অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ছিলের দারুণ ছন্দে। ৬ ইনিংসের তিনটিতেই পঞ্চাশ পার করেন। সব মিলিয়ে পুরো বছরে ২ সেঞ্চুরি ও নয় ফিফটি করেন ৩২ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান।

মেয়েদের ক্রিকেটে বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড় হয়েছে টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটার তালিয়া। তাঁর সঙ্গে সেরার লড়াইয়ে ছিলেন ভারতের ওপেনার স্মৃতি মান্ধানা, পাকিস্তানের অলরাউন্ডার নিদা দার এবং নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক সোফি ডিভাইন।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে কমনওয়েলথ গেমস ক্রিকেটে স্বর্ণ জেতা তালিয়া ২০২২ সালে ১৬ ম্যাচ খেলে ৬২.১৪ গড়ে ৪৩৫ রান তোলেন। এ ছাড়া ডানহাতি পেস বোলিংয়ে নেন ১৩ উইকেট।

বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটারের পাশাপাশি বর্ষসেরা সহযোগী ক্রিকেটারের পুরস্কারও ঘোষণা করেছে আইসিসি। সহযোগী সদস্য দেশের ক্রিকেটারদের এই পুরস্কারটি ছেলেদের বিভাগে পেয়েছেন নামিবিয়ার জেরহার্ড এরাসমাস। নামিবিয়াকে নেতৃত্ব দেওয়া এই অলরাউন্ডার ২০২২ সালে ওয়ানডেতে ৯৫৬ রান ও ১২ উইকেট এবং টি-টোয়েন্টিতে ৩০৬ রান ৬ উইকেট নেন।

মেয়েদের ক্রিকেটে বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের স্বীকৃতি পেয়েছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের এশা ওজা। ২৪ বছর বয়সী এই ডানহাতি ব্যাটার ২০২২ সালে টি-টোয়েন্টিতে দুটি সেঞ্চুরি ও দুটি ফিফটিসহ ১৩৪.১৯ স্ট্রাইক রেটে ৬৭৫ রান তোলেন। ডানহাতি অফস্পিনে ওভারপ্রতি ৪.৮৪ রান খরচে নেন ১৫ উইকেট।