৩৪ বছর বয়সে আরেকটি বিশ্বকাপ খেলবেন কি না, তা অনেক কিছুর ওপর নির্ভর করছে জানিয়ে পিএসজি ফরোয়ার্ড বলেছেন, ‘আরেকটি বিশ্বকাপ খেলতেও পারি, আবার না–ও পারি। এটা অনেক কিছুর ওপর নির্ভর করছে। হতে পারে কোচ বদলে গেল, সেই কোচ আমাকে পছন্দ করলেন না।’

২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে চোট পেয়েছিলেন নেইমার। চোট পান ২০১৮ বিশ্বকাপের আগেও। চোটপ্রবণতার কারণেই কি দীর্ঘ সময় খেলা চালিয়ে যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগছেন তিনি?

এ ক্ষেত্রে নেইমারের উত্তর না–সূচক, ‘শারীরিক কারণ? না। ওটা নির্ভর করছে আমি তখন কোন অবস্থায় থাকব তার ওপর। আমি আসলে বিষয়টি নিয়ে এই মুহূর্তে কিছু বলতে চাচ্ছি না। আমি শুধু এবারের বিশ্বকাপটা খেলতে চাই। নিজেকে ঢেলে দিতে চাই। কারণ, আমাদের এবার অনেক দূর যাওয়ার সামর্থ্য আছে বলে আমি বিশ্বাস করি।’

পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল প্রতিটি বিশ্বকাপেই যায় শিরোপার দাবিদার হিসেবে। ব্যতিক্রম নয় এবারও। তবে কাতার বিশ্বকাপে অনেকেই ব্রাজিলের চেয়েও অন্যদের বেশি এগিয়ে রাখছেন মন্তব্য করে নেইমার বলেন, ‘যদিও প্রচুর মানুষ এবার আমাদের ওপর আস্থা রাখছে না, তবু বলব আমরা ভিন্ন কিছুই দেখাব। এবারের বিশ্বকাপের দলটির ফল ভালো কিছুই হবে। নিজেদের আমি অনেক দূরই দেখতে পাচ্ছি।’