এবারের দলটিতে ক্রোয়েশিয়ার লিগে খেলা খেলোয়াড় বেশি জানিয়ে দালিচ বলেন, ‘২০১৮ আসরে ক্রোয়েশিয়ান লিগের মাত্র একজন ছিলেন দলে। এবার আছেন সাত–আটজন। ওই সময়কার দলটি একসঙ্গে ১০ বছর ধরে খেলেছিল, অনেক রকম অভিজ্ঞতা ছিল। এবার তেমনটা না থাকলেও মদরিচ, ব্রোজোভিচ, পেরিসিচরা সঙ্গে আছে। তরুণ খেলোয়াড়দের ওপর আমি বিশ্বাস রাখছি।’

ক্রোয়েশিয়ার বিশ্বকাপ দল

গোলকিপার: ডমিনিক লিভাকোভিচ, ইভিচা ইভুসিচ, ইভো গারবিচ

ডিফেন্ডার: ডোমাগোজ ভিদা, দেয়ান লভরেন, বোর্না বারিসিচ, জোসিপ জুরানোভিচ, জসকো জিভারদিওল, বোর্না সোসা, জোসিফ স্তানিসিচ, মার্টিন এরলিচ, জোসিপ সুতালো।

মিডফিল্ডার: লুকা মদরিচ, মাতেও কোভাচিচ, মার্সেলো ব্রোজোভিচ, মারিও পাসালিচ, নিকোলা ব্লাসিচ, লভরো ম্যাজার, ক্রিস্টিয়ান ইয়াকিচ, লুকা সুচিচ

ফরোয়ার্ড: ইভান পারিসিচ, আন্দ্রে ক্রামারিচ, ব্রুনো পেতকোভিচ, মিসলাভ ওরসিচ, আন্তে বাদিমির ও মার্কো লিভায়া।

ওয়েলস বিশ্বকাপ দল

গোলকিপার: ওয়েন হেনেসি, ড্যানি ওয়ার্ড, অ্যাডাম ডেভিয়েস

ডিফেন্ডার: বেন ডেভিয়েস, বেন কাবাঙ্গো, টম লকিয়ার, জো রোডেন, ক্রিস মেপহাম, ইথান আমপাদু, ক্রিস গুনটার, নেকো উইলিয়ামস, কনর রবার্টস

মিডফিল্ডার: সোর্বা থমাস, জো অ্যালেন, ম্যাথিউ স্মিথ, ডিলাম লেভিট, হ্যারি উইলসন, জো মোরেল, জনি উইলিয়ামস, অ্যারন রামসে, রুবিন কলউইল

ফরোয়ার্ড: গ্যারেথ বেল, কেইফার মুর, মার্ক হ্যারিস, ব্রেনান জনসন ও ডেনিয়েল জেমস।

ক্যামেরুন বিশ্বকাপ দল

গোলকিপার: আন্দ্রে ওনানা, ডেভিস ইপাসি, সিমন নাগাপানদোয়েনবু

ডিফেন্ডার: ইয়ান–চার্লস ক্যাসতেলেতো, এনজো ইবোসি, কলিন্স ফাই, অলিভিয়ের এমবাইজো, নোহু তোলো, নিকোলাস এনকুলু, ক্রিস্টোফার উহ

মিডফিল্ডার: অলিভিয়ের এনটচাম, জায়ের ওনদুয়া, মার্টিন হোংলা, পিয়েরে কুন্দে, স্যামুয়েল ওয়াম গুয়েত, আন্দ্রে–ফ্রাঙ্ক জামবো অ্যাঙ্গুইসা, জেরম এনগম

ফরোয়ার্ড: নিকোলাস এনগামালেউ, ক্রিস্টিয়ান বাসোগগ, ব্রায়ান এমবিউমো, জর্জেস–কেভিন এনকুদু, ইয়ান–পিয়েরে এনসেম, ভিনসেন্ট আবুবকর, কার্ল তোকা–একামবি, এরিক ম্যাক্সিম চুপো–মোটিং ও সুয়াইবু মারু।