লা লিগায় কাল রাতের আগে রিয়ালের সর্বশেষ তিনটি গোলই ছিল বেনজেমার। ফরাসি তারকা যে চেনারূপে ফিরেছেন, তা বুঝিয়ে দেয় ২৪ মিনিটে বাঁ পায়ের ভলিটি। মাঝমাঠে আলো ছড়ানো কামাভিঙ্গা ডান প্রান্তে পাস বাড়ান ফেদেরিকো ভালভের্দেকে। বক্সে মার্কো আসেনসিওকে দেখে ক্রস করেন উরুগুয়ে তারকা। আসেনসিও হেডে বলটা পেছনে পাঠান সুবিধাজনক জায়গায় দাঁড়ানো বেনজেমার প্রতি। ফরাসি ফরোয়ার্ড বল মাটিতে পড়ার আগেই দুর্দান্ত ভলিতে জালে পাঠান।

লা লিগায় এটি বেনজেমার ২২৮তম গোল। গোলসংখ্যায় রিয়ালের ‘ঘরের ছেলে’খ্যাত রাউল গঞ্জালেসকে ছুঁয়ে ফেললেন তিনি। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে লা লিগায় গোলসংখ্যায় শুধু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোই বেনজেমার চেয়ে এগিয়ে। ৩১১ গোল করেছেন রোনালদো। অ্যাথলেটিকের জালে গোলটি দিয়ে রিয়াল কিংবদন্তি আলফ্রেড ডি স্টেফানোকে (২২৭ গোল) পেছনে ফেলেছেন বেনজেমা। পেশাদার ক্যারিয়ারে অ্যাথলেটিকের বিপক্ষেই সবচেয়ে বেশি গোল তাঁর। ২৮ ম্যাচে ১৯ গোল।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে ও দ্বিতীয়ার্ধে গোলের বেশ ভালো সুযোগ নষ্ট করেছে দুই দল। অ্যাথলেটিক উইঙ্গার নিকো উইলিয়ামস রিয়ালের রক্ষণে একাধিকবার চিড় ধরিয়েছেন। রিয়ালের হয়ে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন আসেনসিও, ভিনিসিয়ুস ও ভালভের্দে। শেষ পর্যন্ত ৯০ মিনিটে আরেকটি গোল আদায় করে নেয় রিয়াল। ডান প্রান্ত দিয়ে আক্রমণে উঠে বক্সের মাথায় টনি ক্রুসকে পাস দেন রদ্রিগো। বদলি হয়ে নামা এই জার্মান মিডফিল্ডার দৌড়ের ওপরই ডান পায়ের জোরালো শটে দারুণ এক গোল করেন।

১৭ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে বার্সেলোনা। ৩ পয়েন্ট পিছিয়ে দুইয়ে রিয়াল। বার্সার সমান ম্যাচ খেলে ৪১ পয়েন্ট তুলেছে কার্লো আনচেলত্তির দল। রক্ষণভাগ ভালো খেলায় খুশি হয়েছেন আনচেলত্তি। লিগে নিজেদের সর্বশেষ ৮ ম্যাচের মধ্যে কাল রাতে দ্বিতীয় ‘ক্লিন শিট’ (গোল হজম করেনি) ধরে রাখল রিয়াল। আনচেলত্তি তাই বলেন, ‘আমাদের দল রক্ষণভাগে ভালো খেলেছে, এই ম্যাচটা তার প্রমাণ। আমরা রক্ষণে জমাট ছিলাম। এমন মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে যাওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ।’